ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলঙ্কজনক অধ্যায় ডাকসু নির্বাচনঃ নুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলঙ্কজনক অধ্যায় ডাকসু নির্বাচনঃ নুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি কলঙ্কজনক অধ্যায় ডাকসু নির্বাচন। নতুন ভিপিঃ নুরুল হক নুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু নির্বাচনঃ
জাতীয় নির্বাচনের পর বাংলাদেশ ছাত্র সমাজ ও তরুণদের মাঝে এই ডাকসু নির্বাচন তারুণ্যের ইতিহাস। কেননা এই ডাকসু নির্বাচনের ওপর নজর থাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্টুডেন্ট সহ অন্যান্য কলেজ পড়া সকল ছাত্র ছাত্রীর। কেননা বাংলাদেশ ছাত্র রাজনীতির মূল কান্ডারী হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে, গতকাল সোমবার, দিবাগত রাত ৩টা ১৭ মিনিটে, বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে, নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা শুরু করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

এ নির্বাচনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) হিসাবে, নির্বাচিত হয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের, নেতা নুরুল হক নুরু। তিনি পেয়েছেন ১১ হাজার ৬২ ভোট।

এছাড়া সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে নির্বাচিত হয়েছেন, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। এবং সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে নির্বাচিত হয়েছেন, ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, সাদ্দাম হোসাইন।

ফলাফল ঘোষণার পরপরই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে জয় পাওয়া এবারের ভিপি নুরুল হক এই ভিপি নির্বাচন প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন, ‘এ রকম নির্বাচন আমাদের কারওরই প্রত্যাশা ছিল না।

২৮ বছর পর এই নির্বাচন হয়েছে। সারা দেশের মানুষ তাকিয়ে ছিল। জাতীয় নির্বাচনের পর নির্বাচনী ব্যবস্থার ওপর মানুষের যে অনাস্থার সৃষ্টি হয়েছিল- আমরা ভেবেছিলাম সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সেখানে আশার আলোর সঞ্চার করা হবে।

কিন্তু প্রশাসনের সহায়তায় ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন যে কারচুপি করেছে তা শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নয় পুরো দেশকে হতাশ করেছে। আমরা মনে করি ১১ মার্চের (ডাকসু) নির্বাচন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়।

এ সময় সংগঠনটির অবস্থান সর্ম্পকে তিনি বলেন, নির্বাচনের এমন অবস্থার কারণে, এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ কারা সংগঠন গুলোর মধ্যে শুধুমাত্র ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন বাদে বাকি সব সংগঠন এই নির্বাচন বর্জন করেছে। তাই তাদের সঙ্গে কথা বলেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *