পাকিস্তান কে হারাতে বাংলাদেশের পরিবর্তিত শক্তিশালী একাদশ

পাকিস্তান কে হারাতে বাংলাদেশের পরিবর্তিত শক্তিশালী একাদশ

পাকিস্তান কে হারাতে বাংলাদেশের পরিবর্তিত শক্তিশালী একাদশ

শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচে আবারো সেই ২০১৬ সালের ন্যায় এশিয়া কাপ ২০১৮ তে পাকিস্তান বনাম বাংলাদেশ আবারো দেখা মিললো সেই এশিয়া কাপে । মনে পরে যায় ২০১৬ এর কথা যেখনে পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন ছিলো বাংলার ১৬ কোটি মানুষের চোখে । কিন্তু পাকিস্তানকে পরাজিত করলেও ফাইনালে আবারো ব্যার্থ হয়েছে ভারতের সাথে ।

বাংলাদেশ :

মাশরাফি মুর্তজা সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়টি পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন যে, কয়েকদিন আগে ইমরুল কায়েস এবং সৌম্য সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে দুবাইয়ে যাবার মধ্য-টুর্নামেন্টের শক্তিশালী শক্তি সম্পর্কে তিনি অন্ধকারে ছিলেন। আফগানিস্তানের সাথে ইমরুল কায়েস কে টিম ম্যানেজমেন্ট ৬ নাম্বারে ব্যাটিং এ পাঠিয়ে মিডেলডারের যে দূরর্বলতা ছিলো সেটি কাটিয়ে একটি শ্বাশ রূদ্ধকর ম্যাচ উপহার দেয়। আফগানদের বিপক্ষে ইমরুলের অপরাজীত ৭২ রানের এই অপ্রতিরুদ্ধ ম্যাচে ইমরুল কায়েসর সাফল্য এর সাথে সাফল্য পেয়েছেন পেয়েছে
টিম ম্যানেজমেন্ট এর পরিকল্পনা । কারণ বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট এমনি একটা পরিকল্পনা করে বাংলাদেশ থেকে সৌম সরকার এবং ইমরুল কায়েস কে উরিয়ে নিয়ে এসেছিলো ।
Bangladesh cricket team
লিটন দাস [0, 6, 7 এবং 41] এবং নাজমুল হোসেন [7, 7 ও 6] উভয়ই ক্রিকেটারের শীর্ষে লড়াইয়ে রয়েছেন। বাদ পরতে পারেন নাজমুল হোসেন শান্ত এবং একাদশে জায়গা পেতে পারে সৌম সরকার ।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য XI:
লিটন দাস, নাজমুল হোসেন / সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, মাহমুদুল্লাহ, মাশরাফি মুর্তজা, মেহদি হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, নামাজুল ইসলাম।

পাকিস্তান :

ফখর জামান চার ম্যাচে 24, 0, 0 এবং 31 রান করেছেন,। ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে তিনি উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে ওঠে এবং সম্প্রতি পাকিস্তানের ওডিআই দ্বিগুণ সেঞ্চুরিয়ান হয়ে ওঠেন, তবে এশিয়া কাপের তার এই পারফারমেন্স সন্তস জনক নয় ।

অন্য দিকে দলের হয়ে ওয়ানডে অভিষেক না হওয়া শান মাসুদ রয়েছেন।  স্কটে ডাক পেলেও এখন পর্যন্ত অভিষেক হয়নি এই উদিয়মান তরুন খেলোয়ারের। তবে আজ জামানের পরিবর্তে অভিষেক হতে পারে 10 টি লিস্ট এ গেমস জুড়ে 90 টি স্কোরসহ তিনটি 100 এবং পাঁচটি অর্ধশতরান করা এই ব্যাস্টমেন। এটি একটি সাহসী যোদ্ধা হতে পারে, যা তাকে নকআউট খেলার গভীরতম প্রান্তে ফেলতে পারে।
পাকিস্তান কে হারাতে
আমিরের টুর্নামেন্টে উইকেট নিতে ব্যর্থতার কারণে পাকিস্তান আবার তাকে বেঁধে রাখতে পারে এবং উসমান শিনওয়ারিকে আরেকবার যেতে দেয়।

পাকিস্তানের সম্ভাব্য XI:
ইমাম উল হক, ফখর জামান / শান মাসুদ, বাবর আজম, সরফরাজ আহমেদ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলী, শাদাব খান, মোহাম্মদ নওয়াজ, হাসান আলী, মোহাম্মদ আমির / উসমান শিনওয়ারি, শাহীন আফ্রিদি।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *