পুলিশের মতো করে নিজের হারিয়ে যাওয়া ফোন নিজেই উদ্ধার করুন

পুলিশের মতো করে নিজের হারিয়ে যাওয়া ফোন নিজেই উদ্ধার করুন

পুলিশের মতো করে এবার নিজের হারিয়ে যাওয়া ফোন নিজেই উদ্ধার করুন

পুলিশের মতো করে আপনিও আপনার চুরি হয়ে যাওয়া প্রিয় Android মোবাইলটি নিজেই উদ্ধার করতে পারবেন ল্যাপটপ অথবা আপনার হাতের কাছের যে কোন Android ফোন দিয়ে।

পুলিশের কাছে আমরা যখন আমাদের হারিয়ে যাওয়া ফোনটি উদ্ধার করার জন্য যাই তখন আমাদের অইনি কিছু কার্যক্রম করতে হয় ,যেমন: জেটি করা ইত্যাদি।

পুলিশের কাছে হারিয়ে যাওয়া ফোন উদ্ধার করতে গেলে আমাদের ফোনের কিছু প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য এবং প্রমান থাকতে হয় যেমন ফোনরে রশিদ/ম্যামো, ওয়ারেন্টি কার্ড, ফোনের বক্স ইত্যাদি। এছাড় কিছু অর্থও খরচ করতে হয়।

তবে পুলিশ ছাড়া এই পদ্ধতিতে আপনার হাড়িয়ে যাওয়া ফোন টি উদ্ধার করতে হলে তা অবশ্যই Samsung ব্যান্ড এর হতে হবে অর্থাৎ এই পদ্ধতি অবলম্বন করে শুধু মাত্র Samsung Brand এর হারিয়ে যাওয়া যে কোন ফোন উদ্ধার করতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় কিছু কথা :

আমরা সাধারনত আমাদের কিছু ব্যাক্তিগত কারণে মোবাইলে প্যাটান লক বা পিন কোর্ড লক দিয়ে থাকি যাতে অন্য কেউ আর আপনার ফোন টি ব্যবহার করতে না পারে। এতে করে আপনি হয়তোবা আপনার কাছের মানুষের হাত থেকে আপনার ফোনটি কে রক্ষা করছেন।

কিন্তু আজ আমরা যে পদ্ধতি শিক্ষতে যাচ্ছি এতে এই লক ব্যবহার করলে কাজ হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, যে ব্যাক্তি আপনার ফোন চুরি করবে সে, অবশ্যই কিছু দিন আপনার ফোনটি ব্যাবহার করবে।

আর যদি আপনার ফোনে প্যাটার্ন বা পিন কোর্ড লক থাকে। তাহলে সেই চোর ফোনটি ব্যবহার বা বিক্রি করার জন্য এই লক খুলতে দুইশত থেকে তিনশত টাকা খরচ করে মোবাইল সার্ভিসিং থেকে কম্পিউটার দিয়ে ফ্লাশ দিবে।

আর যদি সেই চোরের টেকনোলজি সম্পর্কে ধারণা থাকে তাহলে তো সে নিজেই হ্যান ফ্লাশ দিয়ে আপনার দেওয়া লক ভেঙ্গে ফেলবে । আর এই ভাবে যদি সে ফ্লাশ দিয়ে ফোনের লক ভাঙ্গে ফেলে তাহলে আপনার ফোনটি ফ্যাক্টরি রিস্টার্ট হয়ে যাবে মানে একদম নতুন ।

আর নতুন অবস্থায় চলে যাওয়া মানে। ফোনের IMEI number ট্যাকিং ছাড়া আর কোন উপায় নেই ফোন খুজে পাওয়ার । আর IMEI ট্যাকিং ক্ষমতা শুধুমাত্র সরকারের ডিবি/পুলিশ বাহিনীরা ব্যবহার করতে পারে।

তাই অতিরিক্ত প্রয়োজন ছাড়া এই ধরণের সিকিউরিটি লক ব্যবহার না করাই ভালো। আর আজকের এই ট্রিক-টি হলো শুধু মাত্র সেই সকল ভাই দের জন্য যারা ফোনে এই ধরনের লক ব্যবহার করে না ।

কথা তো অনেক হলো এখন তাহলে চলুন জেনে আসি কি ভাবে আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া Samsung ব্রান্ডের প্রিয় ফোনেটি কি ভাবে খুজে পাবেন ।

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

আপনাকে যা করতে হবেঃ-

মোবাইলে কোন প্রকার সিকিউরিটি লক দিবেন না। যদি দেওয়া থাকে তাহলে সেটি এখনি বন্ধ করে দিন। কেননা সিকিউরিটি লক থাকলে ফোনটিকে উদ্ধার করা যাবে না ৯০% । তাই সিকিউরিটি লক অফ করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ । কারণ এতে করে ফোনটি উদ্ধারের সম্ভাবনা ৯৯%।

এরপর আপনাকে একটি Samsung একাউন্ট তৈরী করে নিতে হবে। আর এই একাউন্ট টাই হলো মূল অস্ত্র । আর এই Samsung একাউন্টি তৈরী করে নিতে পারলে আপনি আপনার ফোনের একসেস আপনার হাতের মুঠোয় পাবেন। ।

কিভাবে একাউন্ট তৈরী করবেন জানতে নিচে দিকে লক্ষ্য করুন :

পুলিশের
পুলিশের মতো করে নিজের হারিয়ে যাওয়া ফোন নিজেই উদ্ধার করুন

প্রথমে আপনার ফোনের Setting>Account>Samsung এই অপশনে জান।

পুলিশের
সাইন আপে ফরম

এবার এখানে ক্লিক করে একটি Samsung একাউন্ট তৈরী করে নিন।

পুলিশের
সঠিক ভাবে এই ফরম টি পুরন করুণ।

যাদের অলরেডি একাউন্ট আছে তারা Sign in করবেন। আর যাদের একাউন্ট নেই তারা Sign up করবেন । উপরের ছবিটির দিকে ভালো করে লক্ষ্য করুণ আর যেখানে যেটা বসাতে বলা আছে সেখানে সেটা বসান। তবে পাসওয়াড দেওয়ার সময় (letter+number ) মিশ্রণ করে দিবেন ।

এই ইমেলই এবং পাসওয়াড কিন্তু খুবই গুরত্বপূর্ন কেননা এই ই-মেইল এবং পাসওয়াড ব্যবহার করে আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া মোবাইলটি উদ্ধার করতে পারবেন। তাই এটি আপনার ডায়রিতে লিখে রাখুন।

এবার ল্যাপটপ বা মোবাইলের ক্রম ব্রাউজার ডেক্সটপ করে প্রবেশ করুন এই ওয়েব সাইটটিতে- https://findmymobile.samsung.com

অথবা এখনে ক্লিক করুন

পুলিশের
সাইন ইন এ ক্লিক করুন

এরপর উপরের ছবির মত করে আসলে Sign In এ ক্লিক করুন। যে ইমেল এবং পাসওয়াডটি দিয়ে Samsung Account করেছিলেন সেই Email এবং পাসওয়াটি দিয়েই Sing in করুন।

পুলিশের

 

Sing in সম্পূর্ন হওয়ার পরে উপরের ছবিটির মত করে কিছু অপশন দেখা যাবে । সেখানে Retrieve Calls/message এই অপশনটিতে ক্লিক করুন।

পুলিশের

ক্লিক করার পরে এই অপশনটি চালু হলে আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনটিতে যখন ইন্টারনেট চালু হবে তখন অটোমেটিক ৫০+ পযর্ন্ত ইনকামিং এবং আউটগোইং কলের নাম্বার এবং সময় সহ কল-হিস্টোরি চলে আসবে যা আপনাকে আপনার ফোনের চোর সনাক্ত করতে সহয়তা করবে।

কারণ ইনকামিং এবং আউটগোইং কলের নাম্বার যদি আপনার কাছে থাকে। তাহলে আপনি একজন লোক কে ট্যাক করতে পারবেন। এছাড়াও আপনি মোবাইলটির লোকেশন জানতে পারবেন ম্যাপ এর মাধ্যমে।

পুলিশের

এখন উপরে যে অপশন গুলো দেখতে পারছেন সে সবগুলো আপনি ব্যবহার করতে পারবেন যদি আপনার চুরি যাওয়া ফোনটি ইন্টারনেটের সংস্পর্শে আসে। আর নেটে আসা নিয়ে কোন টেনশন করতেই হবে না, কারণ একটি স্মার্ট ফোন ইন্টারনেট ছাড়া কেউ চালায় তার সংখ্যা একেবারেই নগন্য।

YouTube, IMo, Facebook এগুলো ব্যবহারের জন্যই একদিন হলেও ইন্টারনেটের সংস্পর্শে আসবেই। আর আসা মাত্রই আপনি পেয়ে যাবেন তার হিস্টোরি।

উপরের অপশনগুরোর বিস্তারিত কার্যক্রম :

Phone status : আপনার ফোনে সে কোন কম্পানীর সিম কার্ড ব্যবহার করতেছে তা দেখতে পাবেন। এবং ফোনে কত % চার্জ রয়েছে তাও দেখতে পাবেন ও শেষ কতক্ষন আগে ইন্টারনেট এ কানেক্ট দিয়েছিল তাও দেখতে পাবেন।

Ring : যদি আপনার কাউকে সন্দেহ হয় তাহলে তার কাছাকাছি যখন যাবেন তখন Ring এ ক্লিক করলে উচ্চস্বরে আপনার ফোনে রিং বাঁজতে থাকবে যা ফোনটি বন্ধ করা ছাড়া অফ করার উপায় থাকবে না। আর আপনার ফোন টি যদি তার কাছেই থাকে তাহলে সে ধরা পরে যাবে।

Lock: এই অপশনটির মাধ্যমে ফোনটি লক করতে পাবেন।

Unlock : এই অপশনের মাধ্যমে ফোনটি আনলক করতে পাবেন।

Erase Data: এই অপশনের মাধ্যমে ফোনের সকল প্রকার ডাটা ডিলেট করে দিতে পারবেন।

এই রকম আরো নিত্য নতুন ট্রিক্স পেতে DeshBD25 এর সংঙ্গেই থাকুন।

4 Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *