মাশরাফি এর বিধ্বংশী বলিং এ ছিন্ন-ভিন্ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স

মাশরাফি এর বিধ্বংশী বলিং এ ছিন্ন-ভিন্ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স

মাশরাফি এর বিধ্বংশী বলিং এ ছিন্ন-ভিন্ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স

মাশরাফি
মাশরাফি বিন মর্তুজা।

মাশরাফি এ ম্যাচে বিধ্বংশী ছিলোঃ
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (BPL) মঙ্গলবার (৮ই জানুয়ারি) দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে রংপুর রাইডার্স ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স। টসে জিতে বোলিং করতে নেমে আগুন ঝরা বোলিং করেছেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৬.২ ওভারে ৬৩ রানে অলআউট হয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স। টসে জিতে বোলিং করতে নেমেই আগুন ঝরা বোলিং করেছেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বলা যায় অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা একাই প্রতিপক্ষের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন তিনি।

চার ওভার বলিং করে মাত্র ১১ রান খরচ করে তুলে নিয়েছেন প্রতিপক্ষের টপ অর্ডারের চারটি উইকেট। এই চার জনের মধ্যে দুই জন ছিলো বাংলাদেশি । অন্য দু জন হলো বিদেশি খেলোয়ার। এই চার ইউকেট নিয়ে কুমিল্লার মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দিয়েছেন ম্যাশ।

অন্যদিকে মাশরাফির সাথে বল হাতে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন স্পিনার নাজমুল হোসেন অপু (নাগিন)। তিনি নিয়েছেন তিনটি উইকেট।

৬৩ রানের মধ্যে কুমিল্লার হয়ে দুই অংকের ঘরে শুধু একজনই গিয়েছেন। আর তিনি হলেন পাকিস্তানি সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি, যিনি ১৮ বলে ২৫ রানের ইনিংস খেলেছেন ।

এখনো বিপিএলে সবচেয়ে কম রানে অলঅউটের দল হিসাবে আছে মাহমুদুল্লার খুলনা টাইটান্সের। ২০১৬ সালে বিপিএল এর চতুর্থ আসরে রংপুরের বিপক্ষেই ১০.৪ ওভারে ৪৪ রানে অলআউট হয়েছিল খুলনা।

এই ম্যাচে ৪ ওভার বল করে ১ টি মেডেল অভার নিয়ে বাকি তিন অভারে ১১ রান দিয়ে ৪ উইকেট শিকার করেছেন মাশরাফি। যা কিনা তার ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং। এর আগে মাশরাফির টি-টোয়েন্টিতে সেরা বোলিং পরিসংখ্যান ছিল ১৯ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেট।

এদিন মাশরাফি একে একে ফিরিয়েছেন তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, এভিন লুইস ও স্টিভ স্মিথকে। ৪ রান করে ফরহাদ রেজার হাতে তালুবন্ধি হয়ে ফেরেন তামিম। ২ রানে বোপারার হাতে তালুবন্ধি হয়ে ফেরেন ইমরুল।

এরপর ৮ রানে অপুর হাতে তালুবন্ধি হয়ে ফেরেন লুইস। অন্যদিকে রানের খাতা না খুলেই ফরহাদ রেজার হাতে তালুবন্ধি হয়ে ফেরেন কুমিল্লার অধিনায়ক স্মিথ। তাদেরকে সাঝঘরে ফিরিয়েছেন মাশরাফি।

একটি মেডেল অভার সহ ৪ অভারে ১১ রান দিয়ে ৪ ইউকেট তুলে নেয়ার ম্যাচ শেষে তিনি হয়েছেন ম্যাচ সেরা

অথচ দু দলের একাদশেই ছিলো দেশি বিদেশি তারকা খেলোয়াড়ে ভরপুর

রংপুর রাইডার্সের একাদশ:
ক্রিস গেইল, মিঠুন, রাইলি রুশো, মেহেদী মারুফ, রবি বোপারা, বিনি হাওয়েল, ফরহাদ রেজা, মাশরাফি, সোহাগ গাজি, নাজমুল ইসলাম, সফিউল ইসলাম।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ার্স একাদশ:
স্টিভেন স্মিথ, আনামুল হক, তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মো সাইফুদ্দিন, আবু হায়দার, মো: শহিদ, মেহেদি হাসান, ইভেন লুইস, শোয়েব মালিক, শহীদ আফ্রিদি।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *