Water is a way to make phones better

Water is a way to make phones better

Water is a way to make phones better

Water is a way to make phones better : বর্তমান যেহেতু বর্ষাকাল এবং বাংলাদেশের অনেক নিম্নাঞ্চল এখন পানির নিচে তাই আমাদের দামী কোন ব্রান্ডের মোবাইল ফোন অথবা অনেক সখের কোন মোবাইল ফোন কোন কারনে পানিতে ভিজে গেলে বা হাত থেকে পানিতে পরে গেলে সাধারণ কিছু উপায় অবলম্বন করে তা খুব সহজেই সুরক্ষা করা সম্ভব।

Water is a way to make phones better
Water is a way to make phones better

Water is a way to make phones better : বর্তমান বাজারে এখন অনেক দামী এবং বিশেষভাবে তৈরিকৃত মোবাইল কভার পাওয়া যায়। এই বিশেষ ধরনের কভার সঠিকভাবে কেউ ব্যবহার করলে মোবাইলে পানি ঢোকার সম্ভাবনা ৯০% কমে যায়।

ফোনে পানি থাকা অথবা ভেজা মোবাইল ফোন রক্ষার বেশ কিছু সহজ উপায় আজ আমি আপনাদেরকে বলবো তা হলো,

Water is a way to make phones better :

(১) সখের মোবাইল ফোনটি ভিজে গেলে সবার আগে যে কাজটি করা দরকার তা হচ্ছে, ফোনটি থেকে ব্যাটারি টা খুলে আলাদা জায়গায় রাখুন। এটি করলে ফোনে শর্ট সার্কিট হওয়ার সম্ভাবনা কমে আসে।

(২) তারপর ফোনের ভিতরে থাকা সিম কার্ড এবং ম্যামোরি কার্ড থাকলে সেটিও খুলে নির্দিষ্ট যায়গায় রাখুন। কারণ বেশি সময় ধরে মোবাইল ফোন ভিজে থাকার কারনে অনেক সময় সিম কার্ডটিও নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

(৩) ফোনটিকে যতটা সম্ভব রোদ কিংবা হালকা তাপে তারাতারি শুকানোর ব্যবস্থা করতে হবে।

(৪) সখের মোবাইল ফোনটির অভ্যন্তরে লেগে থাকা পানি দ্রুত যেন মুছা যায় সেজন্য ব্যবহার করতে হবে পেপার টাওয়েল বা শুকনা সুতির কাপড় অথবা টিস্যু।

(৫) Vacuum cleaner/ভ্যাকুয়াম ক্লিনার এর সাহায্যে নিয়েও আপনি আপনার সখের মোবাইল ফোনটি তারাতারি শুকাতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের বাতাসের মাত্রা যেন সঠিক হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। তাই Vacuum cleaner এ যদি কেউ অভ্যস্থ না থাকে তাহলে সেটা এড়িয়ে চলাই বুদ্ধিমানের কাজ। আবার অনেক ক্ষেত্রে সব ফোন ব্যবহারকারীর বাসায় Vacuum cleaner যন্ত্রটি থাকে না।

(৬) Hairdryer/হেয়ার ড্রায়ার দিয়েও আপনি ফোনটি কম সময়ের মধ্যে ভালোভাবে শুকিয়ে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে লক্ষ রাখা ভালো ব্যাটারি টি খোলা অবস্থায় হালকা কিছুটা উঁচু থেকে হেয়ার ড্রায়ার ধরে মোবাইল ফোন শুকানোর জন্য একটু সময় নিয়ে চেষ্টা করতে হবে।

(৭) একটা বিষয় আগে থেকে জানা ভালো যে আপনার ভেজা ফোনটি শুকানোর পরেই সঙ্গে সঙ্গেই অন বা চালু করা যাবে না।

(৮) পরেরদিন আপনার নিকস্থ কোন সার্ভিস সেন্টার অথবা ফোনের অভ্যন্তরীণ যেকোন সমস্যা ঠিক করতে পারে এমন লোকের মাধ্যমে ফোনের অবস্থা সম্পর্কে ভালোভাবে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে।

(৯) আপনার ভেজা ফোনটি ভালোভাবে শুকানোর জন্য মোবাইল ফোনটির বাইরের কেসিং, কভার ও অন্যান্য ইত্যাদি অবশ্যই খুলে রাখতে হবেন।

(১০) তবে মনে রাখতে হবে Oven/ ওভেন, Micro oven মাইক্রোওভেন কখনো সূর্যের তাপে শুকানোর চেষ্টা করা যাবে না। এতে করে আপনার ফোনের অনেক বড় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যেতে পারে।

(১১) অনেক ক্ষেত্রে লক্ষ করা যায় যে অনেকেই নিজের ভিজে যাওয়া মোবাইল ফোনটব থেকে পানি বের করতে বা ঝড়াতে ফোনে জোরে জোরে ঝাঁকি দিয়ে থাকেন। এরকমনটি কখনো করা যাবে না তবে মৃদুভাবে বা হালকা করে ঝাঁকালে তেমন কোনো ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা নাই।

(১২) আপনার ভেজা ফোনটি রাখতে পারেন চালের মধ্যে। কারন চালের বস্তা বা পাত্রের মধ্যে কিছুদিনের জন্য ফেলে রাখুন আপনার ভেজা মোবাইলটি। এই সময় টাতে মোবাইল ফোনটি কোন ভাবেই চালু করা যাবে না এবং সেই ফোনের ব্যাটারি টিও লাগানো যাবে না।

জেনে রাখা ভালো, আমারা সাধারণত জানি যে, ভেজা কোন জিনিসের পানি খুব সহজেই শুষে নেওয়ার ক্ষমতা রাখে এই চাল। তাই এ প্রক্রিয়া টির মাধ্যমেও আপনার ভিজে যাওয়া সখের ফোনটি অল্প সময়ের মধ্যে শুকিয়ে নিতে পারেন।

(১৩) যারা মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন তাদের মনে রাখা জরুরি যে, বাজারের যদি কোন দোকানপাট বন্ধ হয়ে যাওয়ার সময় কিছুক্ষন পরেই ভারি বৃষ্টি অথবা ভিন্ন কোনো কারণে আপনার সখের মোবাইল ফোনটি ভিজে গেলো অথবা মনে করেন উক্ত সময়ে অন্য যে কোনো কারনবশত যদি আপনার নিকস্থ কোন সার্ভিস সেন্টারে দ্রুত বা সঙ্গে সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার মত কোন উপায় না থাকে তাহলে ফোনটি শুকানোর পরও মোবাইল ফোনটি কখনোই চালু করবেন না।

(১৪) নিজের সময়-সুযোগ মত সার্ভিস সেন্টারে অথবা নিজ ফোনের কাষ্টমার কেয়ারে গিয়ে ফোনটি সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে ফোনের অবস্থা সম্পর্কে।

(১৫) সার্ভিসিং সেন্টারের ক্ষেত্রে নিজের ফোনটি যে কোম্পানি/ব্র্যান্ডের সেখানেই নিয়ে যাওয়া টা হবে একমাত্র বুদ্ধিমানের কাজ। যদিওবা খরচ টা অনেকক্ষেত্রে একটু বেশিই গুনতে হতে পারে সেখানে।

(১৬) অথবা আপনার স্বল্পদামের কেনা ফোনটি ঠিক করার জন্য নিকস্থ সাধারণ কোন সার্ভিস সেন্টারের সেবাও গ্রহণ করতে পারেন। সেক্ষত্রে বাড়ির আশপাশেই যেকোন মোবাইলের দোকানগুলোতে পেতে পারেন এ সেবা। তবে নিকস্থ যে মোবাইল সার্ভিসিং এর দোকানে যাবে সেখানে তার কাজের মান এবং দক্ষতা সম্পর্কে আগে জেনে নিতে হবে।

উপরোক্ত কাজগুলো সঠিক নিয়মে & সঠিক সময়ের মধ্যে করতে পারলে আমি মনে করি আপনার সখের ফোনটি আবার পুনরায় আগের মতই চালু হবে এবং সম্পূর্ণ ভালো হবে।

সবাইকে ধন্যবাদ।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *